October 29, 2020, 1:27 am

কারাগারের আসামী হত্যা মামলায় অবসারপ্রাপ্ত কারা পুলিশ গ্রেফতার

মেহেরপুরে ২০১৭ সালে কারাগারে জামরুল ইসলাম নামের এক আসামী হত্যা মামলায় দোয়াত আলী (৬৫) নামের সদ্য অববসরপ্রাপ্ত এক কারা পুলিশকে আটক করেছে গাংনী থানা পুলিশ। শুক্রবার  ভোররাতে গাংনী থানা পুলিশের একটি টীম তার গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দোয়াত আলীকে গ্রেফতার করেন।
দোয়াত আলী গাংনী উপজেলার ভমরদহ গ্রামের আখের আলীর ছেলে। সে জিআর ১৩০/২০১৭ মামলায় আদালতের পরোয়ারাভূক্ত আসামী।

জানা গেছে, ২০১৭ সালে গাংনী উপজেলার বালিয়াঘাট গ্রামের জামারুল নামের এক আসামী মেহেরপুর জেলখানায় মারা যান । সে সময় কারা পুলিশ দোয়াত আলী নিরাপত্তার দায়ীত্বে ছিলেন।

এঘটনায় মেহেরপুর সদর থানায় ৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।সদর থানার মামলা নং ৩১ তারিখ ২৩/০৪/১৭ ইং। ধারা নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু ( নিবারন আইন) এর ১৫ ধারা।

জামরুল ইসলামের স্ত্রী শাহিনা খাতুন  জানান, ২০১৭ সালের ১৭ আগষ্ট জেলখানা থেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে একজন ফোন দিয়ে বলেন আপনার স্বামী জামরুল স্টোক করে মারা গেছেন। পরে আরেকজন কারা পুলিশ পরিচয় দিয়ে বলে আপনার স্বামী গলাই ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পরে আমরা ময়নাতদন্ত শেষে লাশ এনে মাটি দিই। এঘটনার ৬ মাস পরে মেহেরপুর সদর থানা পুলিশ আমাকে খবর দিলে সেখানে যায়।

পুলিশ আমাদের জানান, জামরুল ইসলামকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা হয়েছে। মামলার তিনজন আসামীর নাম মনে আছে। এরা হলেন তৎকালিন কারা পুলিশ আলামিন হোসেন, মামুন ও দোয়াত আলী।

তিনি আরো জানান, আমার স্বামী জেলে থাকা অবস্থখায় সদর উপজেলার টেংরামারী গ্রামের সোহরাব হোসেন নামের একজন আমার কাছে মামলা মিটিয়ে দেওয়ার নাম করে ৪০ হাজার টাকা দাবী করেছিল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গাংনী উপজেলার বালিয়াঘাট গ্রামের সোলেমান হোসেনের ছেলে জামরুল ইসলামের নামে বালিয়াঘাট গ্রামের ফকির মন্ডেলের ছেলে আদম আলী হত্যা মামলা ও ফেনসিডিল এবং ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় তিনটি পৃথক মামলা ছিল। তার বিরুদ্ধে এলকায় চুরি ডাকাতির অভিযোগও করেছেন লোকজন।

গ্রেফতারকৃত অবসরপ্রাপ্ত কারা পুলিশ দোয়াত আলীকে আদালতের মাধ্যমে মেহেরপুর জেল হাজতে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি ওবাইদুর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর