October 28, 2020, 4:48 am

সাতক্ষীরায় বার্লির উপর মাঠ দিবস পালন

শাহিনুর ইসলাম:: সাতক্ষীরায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উপকূলীয় এলাকায় বার্লি উৎপাদনের আধুনিক কলাকৌশলের উপর এক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯মে) সকালে সাতক্ষীরা বেনাপোতা কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের আয়োজনে ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগ বিএআরআই গাজীপুর-এর আর্থিক সহায়তায় সদরের হাড়দ্দহা গ্রামে উপকূলীয় লবণাক্ত এলাকায় বার্লি উৎপাদনের উক্ত মাঠ দিবস পালন করা হয়। কৃষি গবেষণা কেন্দ্র সাতক্ষীরার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (চ:দা:) ড. মো: মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খামারবাড়ি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সাতক্ষীরার উপ-পরিচালক জনাব মো: নুরুল ইসলাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, উপকূলীয় এলাকার জন্য বার্লি একটি সম্ভাবনাময় দানা ফসল। কারণ এটি লবণাক্ততাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক প্রতিকূলতা সহ্য করতে পারে। তিনি অত্র এলাকায় বার্লির আবাদ সম্প্রসারণের বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার এই হাড়দ্দহা গ্রামের বিস্তৃর্ণ এলাকার মাটিতে বিভিন্ন মাত্রার লবণাক্তা দেখা দেয়ায় ব্যাপক এলাকা পতিত পড়ে থাকে। লবণাক্ত মাটি ও পানি এখানে ফসল  উৎপাদনের প্রধান অন্তরায়। এজন্য লবণাক্ততা সহিষ্ণু ফসল যেমন- বার্লি, ভূট্টা, কাউন, চীনা ইত্যাদি অপ্রচলিত দানা ফসল চাষ করা যেতে পারে। তিনি আরো বলেন, গবেষণায় দেখা দেখা গেছে যে বার্লি উৎপাদনে একদিকে যেমন স্বল্প সেচ লাগে অন্যদিকে বাড়ন্ত পর্যায়ে এটি প্রায় ৭-৮ ডিএস/মিটার মাত্রার লবণাক্ততা সহ্য করে কাঙ্খিত ফলন দিতে সক্ষম। এছাড়া বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে উদ্ভাবিত হাললেস বার্লি মাড়াই করাও সহজ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষি গবেষণা কেন্দ্র সাতক্ষীরা বেনোরপোতার বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা জনাব অলি আহমেদ ফকির ও বৈজ্ঞানিক সহকারি জনাব আব্দুস সামাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর