October 27, 2020, 2:17 pm

খাসখামারের রাস্তাটি পাঁকা করনের দাবী! সরজমিনে সবুজ ও আলফা

ওমর ফারুক মুকুল:: দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড খাসখামার গ্রামের প্রায় ৫হাজার মানুষের চলাচলের রাস্তাটিতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। স্বাধীনতার পর থেকে আজ পর্যন্ত কেউ পাকাকরণের উদ্যোগ নেইনি রাস্তাটি। যা আজও এই গ্রামের মানুষের কষ্টের কারণ। যতই দিন যাচ্ছে বাংলাদেশ ডিজিটাল ছোঁয়ায় রুপান্তর হচ্ছে, কিন্তু সেই ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত এই খাসখামার গ্রামের মানুষ। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় রাস্তাটির বেহাল দশা। কোথাও ইট আছে কোথাও নেই আবার কোন কোন জায়গায় রাস্তাটি ভেঙ্গে পুকুরের ভিতরে চলে গেছে। এদিকে শনিবার (১৯সেপ্টেম্বর) রাস্তাটি দেখতে আসেন দেবহাটা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান সবুজ ও সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ সদস্য আল ফেরদাউস আলফা। এসময় তারা রাস্তাটি সংস্কারের জন্য এলাকার মানুষের অনেক আশ্বাস দিয়ে যান। স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, খাসখামারের এই প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা দিয়ে গ্রামের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। বর্তমানে রাস্তাটি খুবই খারাপ অবস্থা। এই গ্রামে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে পড়াশোনা করতে গ্রামের ছেলেমেয়েরা কাঁচা রাস্তা ব্যবহার করে তিন কিলোমিটার দূরের বহেরা এ.টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শ্রীরামপুর ইউনাইটেড কলেজসহ সাতক্ষীরার বিভিন্ন স্কুল-কলেজে নিয়মিত যাতায়াত করে। গ্রামটির অধিকাংশ মানুষ স্থানীয় বিভিন্ন শিল্পকারখানায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। অনেকে কৃষিকাজও করেন। একটু বৃষ্টি হলের ইটের রাস্তাটি কাদাপানি জমে থাকে। তখন রিকশা ও ভ্যান, অটোরিকশা চলতে পারে না। এমনকি হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়ে। অনেক বছর ধরে এ রাস্তাটি পাকা করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছেন জনপ্রতিনিধিরা। এই গ্রামের ইয়াকুব আলী জানান, রাতে ব্যবসা বানিজ্য শেষে বাড়ি ফিরতে খুবই দুরঅবস্থায় পড়তে হয় তাছাড়া আমি মটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরলেও বর্ষার সময় পড়তে হয়। রাস্তাটি কি কখনো পাঁকা হবে? রাস্তাটি পাকাকরন খুবই প্রয়োজন। উপজেলা ভারপাপ্ত চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান সবুজ বলেন, আমি রাস্তাটির কথা শুনা মাত্রই রাস্তাটি দেখতে চলে আসছি, খুব দ্রুত রাস্তাটির সংস্কার করনের জন্য ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। জেলা পরিষদ সদস্য আল ফেরদাউস আলফা বলেন, দেবহাটা উপজেলা দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে আর এই একটুতে পিছিয়ে থাকবে এটা খারাপ দেখায়, দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কুলিয়া ইউনিয়ন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আসাদুল ইসলাম বলেন, তার ইউনিয়নে অধিকাংশ রাস্তা পাকাকরন করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এ রাস্তাটির কাজ করা হবে। এলাকাবাসীরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত রাস্তাটি পাকা করনের দাবী জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর